• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ৯ রবিউস সানি ১৪৪১

ফের ধর্মঘটের ঘোষণা পাটকল শ্রমিকদের

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , সোমবার, ০৮ এপ্রিল ২০১৯

বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবি আদায় না হওয়ায় ফের নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছে পাটকল শ্রমিকরা। আগামী ১২ থেকে ২৯ এপ্রিল পর্যন্ত ঘোষিত এসব কর্মসূচির মধ্যে জনসভা, মিছিল, সড়ক ও রেলপথ অবরোধ ও ধর্মঘট রয়েছে। প্লাটিনাম জুট মিলের সিবিএ সভাপতি শাহানা শারমিন কর্মসূচির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, নতুন কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- ১২ এপ্রিল ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনাসহ প্রত্যেক অঞ্চলে শ্রমিক জনসভা, এরপর ১৪ এপ্রিল রাজপথে মিছিল। মিছিলগুলো প্রতিটা মিল গেট থেকে শুরু হবে, যার যার এলাকা প্রদক্ষিণ করে মিছিল আবার মিলে এসে শেষ হবে। এরপর ১৫-১৮ এপ্রিল ৯৬ ঘণ্টার ধর্মঘটসহ প্রতিদিন ৪ ঘণ্টা সড়ক ও রেলপথ অবরোধ। এই সময়ের মধ্যে দাবির বিষয়ে যদি কোন সুরাহা না হয় তাহলে ২৫ এপ্রিল সকাল ১০টায় যার যার মিলে গেটমিটিং করে ২৭-২৯ এপ্রিল আবারও ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘটসহ প্রতিদিন সকাল ৭টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত ৬ ঘণ্টা করে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ করা হবে।

৯ দফা দাবিতে ৭২ ঘণ্টার কর্মসূচি শেষে গতকাল সকালে বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশনের (বিজেএমসি) সঙ্গে বৈঠকে বসেছিলেন ২৬টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিক নেতারা। কিন্তু ৫ ঘণ্টার বৈঠকেও কোন সুরাহা না হওয়ায় তারা নতুন কর্মসূচি ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেন। গতকাল এসব কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

সিবিএ সভাপতি শাহানা শারমিন বলেন, আমরা ২৬টি পাটকলের প্রতিনিধিরা বসে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি। গতকাল বিজেএমসি’র সঙ্গে আলোচনায় কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। বিজেএমসি চেয়ারম্যান বলেছেন, জুন মাসের আগে মজুরি কমিশন বসাতে পারবেন না। বকেয়া মজুরির বিষয়েও তিনি কোন সিদ্ধান্ত দিতে পারবেন না। উনি মন্ত্রণালয়ে আলাপ করবেন, তারপর কবে নাগাদ দিতে পারবেন, তার কোন নিশ্চয়তা দিতে পারেননি। তাই আমরা এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

এর আগে ২ এপ্রিল ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট কর্মসূচি শুরু করে খুলনা অঞ্চলের শ্রমিকরা। ৯টি জুট মিলের ৩৩ হাজার শ্রমিক মিলগুলোতে উৎপাদন বন্ধ রেখে সড়ক ও রেলপথ অবরোধ কর্মসূচি পালন করে। যশোরসহ অন্যান্য অঞ্চলের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরাও এই কর্মসূচিতে শামিল হয়। সড়ক ও রেলপথ অবরোধ, পুলিশ বক্স ও পুলিশের অ্যাম্বুলেন্সে হামলা, ট্রেনে ভাঙচুর ও পাথরের আঘাতে অর্ধশতাধিক যাত্রী আহত হওয়ার ঘটনার মধ্য দিয়ে ৫ এপ্রিল সকাল ৬টায় পাটকলের শ্রমিকদের ৭২ ঘণ্টার ধর্মঘট শেষ হয়। এ ঘটনায় অজ্ঞাত ২৫০ হামলাকারীকে আসামি করে মামলা করেছে পুলিশ।