• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২৯ কার্তিক ১৪২৬, ১৬ রবিউল আওয়াল ১৪৪১

প্যারোলে মুক্তি খালেদার পারিবারিক বিষয়

ফখরুল

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৬ এপ্রিল ২০১৯

কারাবাসে থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্যারোলে মুক্তি তার এবং তার পরিবারের বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের নবগঠিত আহ্বায়ক কমিটির নেতাদের নিয়ে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে তিনি একথা বলেন। এ সময় ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ নেছারুল হক, সদস্য সচিব নজরুল ইসলামসহ সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেন, প্যারোলে মুক্তির বিষয়টি নিয়ে রাজনীতিতে যে আলোচনা চলছে সেটা তার এবং তার পরিবারের বিষয়। তিনি বলেন, প্রথম হচ্ছে, প্যারোল নিয়ে কোন আলোচনা হয়নি। প্যারোল আমাদের দলের বিষয় নয়। এটা বেগম খালেদা জিয়া ও তার পরিবারের বিষয়। সুতরাং এ বিষয়ে আমরা আলোচনা করি নাই। সংসদে যাওয়ার বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়নি জানিয়ে ফখরুল ইসলাম বলেন, ‘এটাকে তো আমরা নির্বাচিত বলছি না। ফলাফলও প্রত্যাখ্যান করেছি।’ কেউ কেউ বলছেন ম্যাডামের মুক্তির বিনিময়ে বিএনপি সংসদে যাবে- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ফখরুল বলেন, এরকম কোন ইনফরমেশন আমাদের কাছে নেই।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে মির্জা ফখরুল বলেন, বাংলা নববর্ষে আমরা তিনজন দেখা করার অনুমতি পেয়েছিলাম। এ সময় মূলত তার স্বাস্থ্য এবং চিকিৎসার ব্যাপারে কথা হয়েছে। তার মামলার আইনগত দিকগুলো নিয়ে আলোচনা হয়েছে। দেশনেত্রী দলের খোঁজ-খবর নিয়েছেন। দলের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে বলেছেন। জাতীয় ঐক্য অটুট রাখতে বলেছেন। তিনি দেশবাসীকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে বিএনপি নেতাদের সাক্ষাৎ : গত রোববার বিকেলে কারাবন্দী খালেদা জিয়ার সঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ) সাক্ষাৎ করেছেন বিএনপি নেতারা। বিএসএমএমইউতে চিকিৎসা নিতে আসার পর এটিই নেতাদের সঙ্গে তার প্রথম সাক্ষাৎ। সাক্ষাৎ করতে যান দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান ও চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খান। সাক্ষাৎ শেষে মির্জা ফখরুল বলেন, ম্যাডাম বেশ অসুস্থ, অত্যন্ত অসুস্থ। এখনও তিনি পা বেন্ড (বাঁকানো) করতে পারছেন না। তার বাম হাত আগের মতোই রয়ে গেছে। অর্থাৎ বাম হাত দিয়ে কাজ করতে পারছে না।