• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬, ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১

পাঁচ শতাংশ পুলিশের জন্য পুরো বাহিনীর বদনাম হচ্ছে হাইকোর্ট

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , মঙ্গলবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০১৯

পাঁচ শতাংশ পুলিশের জন্য পুরো বাহিনীর বদনাম হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি দুই ব্যাংক কর্মকর্তাতে হেনস্তার সঙ্গে জড়িত পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

গতকাল বিচারপতি এফআরএম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কেএম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ মন্তব্য ও নির্দেশ দেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন অ্যাডভোকেট আবুল কালাম ও ইসমাইল হোসেন ভূঁইয়া। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার এবিএম আবদুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

শুনানিতে আদালত বলেন, পুলিশ অপরাধ করলে কিছু হয় না। ৫ শতাংশ পুলিশের জন্য পুরো বাহিনীর বদনাম হচ্ছে। ২৭ জুন রাতে মতিঝিল শাখার সোনালী ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার ইব্রাহিম খলিল তার এক নারী সহকর্মীর সঙ্গে উত্তরার ভুতের আড্ডা রেস্টুরেন্ট থেকে রাতের খাবার শেষে বাড়ি ফিরছিলেন। তাকে আটক করে পুলিশ উত্তরা পূর্ব থানার এএসআই মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে নিয়ে যান। এ সময় ইব্রাহিম আঘাত পান। পরে এএসআই মোস্তাফিজ ইব্রাহিমের কাছে ২০ হাজার টাকা দাবি করে। ইব্রাহিম ৬ হাজার টাকা দিয়ে ছাড়া পান। তবে পরবর্তীতে তাকে বাকি ১৪ হাজার টাকা পরিশোধের জন্য বলে ইব্রাহিম কুর্মিটোলা হাসপাতালে গিয়ে চিকিৎসা নেন। এর কিছুদিন পর পুলিশের ওই এএসআই ইব্রাহিমের নারী কলিগকে ব্যক্তিগতভাবে দেখা করতে বলেন এবং দেখা করলে অবশিষ্ট ১৪ হাজার টাকা পরিশোধ করতে হবে না বলে জানান।

এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে ডিএমপি কমিশনার ও পুলিশের আইজি বরাবর অভিযোগপত্র জমা দেন ইব্রাহিম। একই সঙ্গে নারী কলিগের সঙ্গে পুলিশ কর্মকর্তার কল রেকর্ডিং, মেডিক্যাল সার্টিফিকেটও দাখিল করা হয়। কিন্তু এ বিষয়ে কোন পদক্ষেপ না নেয়ায় গত ২৫ জুলাই ইব্রাহিম হাইকোর্টে রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত জড়িত পুলিশ সদ্যসের বিরুদ্ধে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।