• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১৭ এপ্রিল ২০২১, ৪ বৈশাখ ১৪২৮ ৪ রমজান ১৪৪২

পরিচয় যাই থাক অন্যায় করলে ব্যবস্থা : কাদের

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০

অপরাধ-অন্যায় যারাই করবে, তাদের যেটাই পরিচয় হোক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। সেই অনুযায়ী অ্যাকশন নেয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল সচিবালয়ে সড়ক ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

এ সময় পাপিয়ার গ্রেফতারের বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘অপরাধ অনুযায়ী অপরাধী শাস্তি পাবে। সরকার দলের হোক কিংবা বাইরের হোক-কোন অপরাধীকে পার পেয়ে যেতে দেইনি। সব অপরাধীকেই বিচারের আওতায় আনা হয়েছে। পাপিয়ার পরিচয় যেটাই হোক, অপরাধী হিসেবে এবং অপরাধ অনুযায়ী বিচার হবে।’ তার (পাপিয়া) পেছনে যারা আছেন, তাদের খুঁজে বের করা হবে কিনা? জবাবে সড়কমন্ত্রী বলেন, অপরাধের বিচার করতে গেলে তো পেছনের লোক খোঁজা হয়ই, হবে না কেন? তারা সামনে আসবে না, এটা মনে করার তো কোন কারণ নেই। আমাদের সরকারের আমলে এ ধরনের বিচার প্রক্রিয়া চলেছে। বিষয়টি যখন আদালতে যাবে, তখন তো সবকিছুই আসবে।

পাপিয়া যে অপরাধ করছেন, আপনারা কি দলীয়ভাবে সেটা বুঝতে পারেননি? এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘বুঝতে পরলে তো আর এটা হতো না।’ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী তাকে ধরেছে, দলীয়ভাবে তাকে অপরাধী হিসেবে শনাক্ত করা যায়নি? জবাবে কাদের বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কি সরকারের বাইরে? এ সরকারের আমলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অপরাধের জন্য যাদের গ্রেফতার করছে, শাস্তি দিচ্ছে- এটা কি সরকারের ইচ্ছার বাইরে হচ্ছে? সরকারের সায় এবং এসব বিষয়ে জিরো টলারেন্স নীতি আছে বলেই আজকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ব্যবস্থা নিচ্ছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সেই স্বাধীনতা দেয়া হয়েছে। অপরাধ-অন্যায় যারাই করবে, তাদের যেটাই পরিচয় হোক তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। সেই অনুযায়ী অ্যাকশন নেয়া হচ্ছে।’

আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করে অনেকে অপকর্ম করছে, দলের মধ্যে কি আরও এমন রয়েছে? তিনি বলেন, আমি একটা বিষয় পরিষ্কার করে বলতে চাই, এ দেশে আগেও সরকার ছিল। ১৯৭৫ সালের পর ২১ বছর আমরা পুরোপুরি পাওয়ারে (শক্তি) ছিলাম না। পার্থক্যটা হচ্ছে, অন্যান্য সরকার অপরাধী-অপকর্মকারীদের বিচারের আওতায় নিয়ে আসার বিষয়টি অবহেলা ও উপেক্ষা করেছে। তাই অপরাধীরা শাস্তি পায়নি। এই সরকারের আমলে কেউ যদি অপরাধ করে তার পরিচয় যদি দলীয়ও হয়, সরকারের পক্ষ থেকে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে নির্দেশ দেয়া আছে, পরিচয় যেটাই হোক অপকর্মের জন্য যেন তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়। বিচার করা হয়।