• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

তিন বছর আগে

ট্রাক চাপায় নিহত ৩ নারীর ঘাতক চালক গ্রেফতার

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

image

বেপরোয়া গতিতে ট্রাক চালিয়ে ৩ জনকে মারার ঘটনায় পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) ঢাকা মেট্রো অঞ্চলের বিশেষ টিম শরিয়তপুরে অভিযান চালিয়ে ঘাতক ট্রাক চালককে গ্রেফতার করেছে। পিবিআইয়ের কর্মকর্তারা জানান, ট্রাক চালক মো. সেকান্দার সরদারকে (৫০) গত রোববার রাতে শরীয়তপুর জেলার নরিয়া থানাধীন জোববাটা গ্রামস্থ ভাড়াবাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তাকে পিবিআইয়ের হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

পিবিআইয়ের কর্মকর্তা জানান, রাসেল হাওলাদার নামে এক ব্যক্তি অভিযোগ করেন যে, তার স্ত্রী মোসা. সুমনা বেগম (২১), তার বোন ফারজানা আক্তার (১৫) এবং তার স্ত্রী ও বোনের সঙ্গী আছিয়া বেগম (২৩) রাজধানীর মীর হাজিরবাগ ফ্যান ফ্যাক্টরিতে চাকরি করত। প্রতিদিনের ন্যায় কাজ শেষে ২০১৬ সালে (১৮/১২/১৬ খ্রি. ) রাত প্রায় ১০টায় মীর হাজিরবাগ চৌরাস্তা হতে বাসায় যাওয়ার পথে শ্যামপুর থানাধীন পশ্চিম ধোলাইপাড় হাইস্কুল গলি মহান ফাস্ট ফুড দোকানের পার্শ্ব রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় ঢাকা মেট্রো-ট-০২-০২৬৩ ট্রাকের চালক দ্রুত গতিতে বেপরোয়াভাবে ট্রাক চালিয়ে তার স্ত্রী মোসা. সুমনা বেগম (২১) এবং বোন ফারজানা আক্তার (১৫) ও তাদের সঙ্গী আছিয়া বেগমকে (২৩) চাপা দিলে ঘটনাস্থলে তারা সবাই গুরুতর জখমপ্রাপ্ত হয় এবং তার বোন ফারজানা ঘটনাস্থলে মৃত্যবরণ করেন। তার স্ত্রী সুমনা বেগম ও তার সঙ্গী মোসা. আছিয়া বেগমদের মুমূর্ষু অবস্থায় স্থানীয় লোকজন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে নেয়ার পর সেখানে তার স্ত্রী সুমনাকেও কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। গুরুতর আহত অবস্থায় আছিয়া বেগম ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১২ দিন পর সেও মারা যায়।

উক্ত ঘটনায় রাসেল হাওলাদার বাদী হয়ে ঢাকা মেট্রো-ট-০২-০২৬৩ ট্রাকের অজ্ঞাতনামা চালকের বিরুদ্ধে শ্যামপুর থানার মামলা নং-১৯, তারিখ-১৯/১২/২০১৬ খ্রি. ধারা-২৭৯/৩০৪-খ/৩৩৮-ক পেনাল কোড দায়ের করেন। উক্ত মামলাটি শ্যামপুর থানা পুলিশ তদন্ত করে ঘাতক ট্রাকটি আটক করলেও অজ্ঞাতনামা ট্রাক চালককে গ্রেফতার/শনাক্ত করা সম্ভব না হওয়ায় মামলাটিতে শ্যামপুর থানার চূড়ান্ত রিপোর্ট সত্য নং-০৭, তারিখ-১১/০৬/২০১৭ খ্রি. ধারা-২৭৯/৩০৪-খ/৩৩৮-ক পেনাল কোড দাখিল করেন। মামলাটি ব্যাপকভাবে তদন্ত করলে ঘাতক ট্রাকের চালককে আটক করা সম্ভব হবে মর্মে বিজ্ঞ আদালত মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য পিবিআইকে নির্দেশ দেন। বিজ্ঞ আদালতের আদেশে পিবিআই, ঢাকা মেট্রো পুলিশ পরিদর্শক মো. সিরাজুল ইসলাম বাবুল মামলাটির তদন্তভার গ্রহণ করে এবং পিবিআই ঢাকা মেট্রো, ঢাকার বিশেষ পুলিশ সুপারের দিক-নির্দেশনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. বশির আহমেদের নেতৃত্বে একটি টিম গত ১১ ফেব্রুয়ারি গত রোববার রাতে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে শরীয়তপুর জেলার নরিয়া থানাধীন জোববাটা গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে পলাতক ঘাতক ট্রাক চালক মো. সেকান্দার সরদারকে (৫০) আটক করে।

আটককৃত আসামিকে জিজ্ঞাসাবাদে পিবিআই জানতে পারে, আসামীর বৈধ কোন ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকা সত্ত্বেও সে দীর্ঘদিন ধরে ড্রাইভার হিসেবে ট্র্রাক চালিয়ে আসছিল। অবশেষে ঘটনার দিন ৩ জন মহিলা পথচারি তার ট্রাকে চাপা পড়লে সে ট্রাকটি ফেলে রেখে ঘটনাস্থল থেকে কৌশলে পালিয়ে যায়।