• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৫ রবিউস সানি ১৪৪১

জাতীয় ঈদগাহ ঘিরে নিরাপত্তা বলয়

সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , রোববার, ১১ আগস্ট ২০১৯

জাতীয় ঈদগাহকে ঘিরে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। ঈদগায়ের আশপাশে পোশাকে ও সাদা পোশাকে পুলিশসহ অন্য বাহিনীর সদস্যরা নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করবে। পুলিশ ও র‌্যাবের কয়েকশ’ সদস্য পালাক্রমে এ দায়িত্ব পালন করবেন। ঈদগাহের প্রধান গেটসহ চারপাশে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকবে। এছাড়া ঢাকার বিভিন্ন স্থানে গুরুত্বপূর্ণ ঈদগাহের পুরো নিয়ন্ত্রণও নিয়ে নেবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা। নিরাপত্তার জন্য গেটে গেটে তল্লাশি, গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে সিসি ক্যামরা, বোম ডিজপোজাল যন্ত্র ও বিষ্ফোরক শনাক্ত করার যন্ত্রসহ নিরাপত্তার সব সরঞ্জাম স্থাপনের কাজ চলছে। এজন্য পুলিশ ও র‌্যাবসহ অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সার্বক্ষণিক দায়িত্ব পালন করবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর একাধিক সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, ঈদের জামাতে যেকোন ধরনের বিশৃঙ্খলা ও নাশকতা এড়াতে র‌্যাবের আগাম গোয়েন্দা নজরদারি বাড়ানোসহ জাতীয় ঈদগাহে এবং এর আশপাশে সার্বক্ষণিক টহল দিবে।

গোয়েন্দা সূত্র জানায়, জাতীয় ঈদগাহে ভিভিআইপিসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ব্যক্তিরা ঈদের নামাজ আদায় করবেন। তাই পুরো ঈদগাহকে ঘিরে নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলার প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। প্রতিটি গেটে পুলিশের টহল টিম দায়িত্ব পালন করবে। ঈদের আগের দিন থেকে মাঠে প্রবেশকারীদের তল্লাশি চালানো হবে। জানা গেছে, ঈদগাহকে ঘিরে শাহবাগ, দোয়েল চত্বর, কার্জন হল, জাতীয় প্রেসক্লাব, রমনা পার্ক, হাইকোর্টসহ পুরো এলাকাজুড়ে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হবে। জাতীয় ঈদগাহকে ঘিরে পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

ঈদের ছুটিতে মতিঝিল ব্যাংকপাড়াসহ বাসাবাড়িতে বাড়তি নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হবে। গতকাল থেকে এই নিরাপত্তা দেয়া শুরু হবে। অফিস ছুটি শেষ না হওয়া পর্যন্ত এই নিরাপত্তা থাকবে। একই সঙ্গে গোয়েন্দা তৎপরতা বাড়ানো হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সূত্র জানায়, ঈদের ছুটিতে ব্যাংকপাড়াসহ বিভিন্ন অফিস আদালত বন্ধ থাকে। ব্যাংকের নিজস্ব সিকিউরিটি থাকে। আর বহু মানুষ নাড়ির টানে বাড়ি যান। এই সময় ঢাকা শহর ফাঁকা হয়ে যায়। অনেকেই বাসাবাড়িতে তালা ঝুলিয়ে বাড়ি যায়। যেকোন সময় সংঘবদ্ধ অপরাধীরা চুরি-ডাকাতি করতে পারে। এর আগে বিভিন্ন সময় ঈদের ছুটিতে স্বর্ণের দোকানসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চুরির ঘটনা ঘটছে। এজন্য এবার আগ থেকে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে। এ সম্পর্কে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার আবদুল বাতেন বলেন, ছুটির সময় যাতে চুরি, ডাকাতি ও ছিনতাইয়ের মতো ঘটনা না ঘটে তার জন্য বাড়তি নিরাপত্তা বলয় গড়ে তোলা হয়েছে। মতিঝিলসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনাগুলোর আশপাশে সাদা পোশাকে গোয়েন্দা সদস্যরা অবস্থান নিবে।