• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯, ১কার্তিক ১৪২৬, ১৬ সফর ১৪৪১

এক মাসের মধ্যে সরকার পতন আন্দোলনে যাবে বিএনপি

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানিয়েছেন বিএনপির নেতারা। তারা বলেছেন, খালেদা জিয়াকে ছাড়া একতরফা কোন নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। একই সঙ্গে এ লক্ষ্যে এক মাসের মধ্যেই বিএনপি সরকার পতনের চূড়ান্ত আন্দোলনে যাবে বলে জানানা তারা।

খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও তার মুক্তির দাবিতে গতকাল সকাল ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত প্রতীকী অনশন কর্মসূচি পালন করেছেন দলটির নেতাকর্মীরা। রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনের সামনে আয়োজিত এই প্রতীকী অনশন কর্মসূচিতে বিএনপি নেতারা এসব কথা বলেন। গ্রেফতার এড়াতে কর্মসূচি শেষ হওয়ার আধা ঘণ্টা আগে থেকে অনশনস্থল ত্যাগ করা শুরু করেন অনেক নেতা। গ্রেফতার অভিযানের মাধ্যমে পুলিশ বিএনপির কয়েকজন নেতাকর্মীকে ধরে নিয়ে যায়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমেদ বিএনপির জ্যেষ্ঠ নেতাদের পানি পান করিয়ে প্রতীকী অনশন ভাঙান।

প্রতীকী অনশনে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, সরকার খা?লেদা জিয়ার মুক্তি চায় না। আইনি প্রক্রিয়ায় খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। তাই খালেদা জিয়ার মুক্তির একমাত্র পথ রাজপথ। রাজপথে আন্দোলন করে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। সামনে এমন কর্মসূচি দেয়া হবে, যে কর্মসূচিতে এই সরকারের নৌকা ভেসে যাবে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, এই সরকার যতই ষড়যন্ত্র করুক ২০১৪ সালের মতো নির্বাচনের পুনরাবৃত্তি এ দেশে হবে না। পুলিশ বাহিনীর উদ্দেশে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, সরকারের সময় শেষ। মামলা, গ্রেফতার করে বিএনপির দাবি আদায়ের আন্দোলন দমন করা যাবে না। পুলিশ প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী, আওয়ামী লীগের কর্মচারী না। তাই অযথা বিএনপির নেতাকর্মীদের হয়রানি, গ্রেফতার ও মামলা দেবেন না।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস বলেন, সরকার বিএনপির জনসমর্থন দেখে ভীত হয়ে পড়েছে। তাই সারা দেশে এখন গায়েবি মামলা দিচ্ছে, গুম-খুন করছে। সরকারকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, যতই অত্যচার-নির্যাতন করেন, বিএনপি নেতাকর্মীরা ঘরে বসে থাকবে না। আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে তাকে নিয়ে নির্বাচনে যাব এবং জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করব।

গুরুতর অসুস্থ হওয়ার পরও খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে না অভিযোগ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সরকার আইনের দোহাই দিয়ে খালেদা জিয়াকে তিলে তিলে মারার ষড়যন্ত্র করছে।

এ ছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতাদের মধ্যে বক্তব্য দেন জামায়াতে ইসলামীর নায়েবে আমির মিয়া গোলাম পরোয়ার, কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্য আবদুল হালিম, লেবার পার্টির একাংশের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, কল্যাণ পার্টির সহসভাপতি শহীদুর রহমান তামান্না, ন্যাপের চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম, জাগপার সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান প্রমুখ।

এদিকে অনশন কর্মসূচিকে ঘিরে সারাদেশে এ পর্যন্ত দেড় শতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন দলটির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল বিকেলে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, প্রতীকী অনশনকে কেন্দ্র করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ‘ব্যাপক তান্ডব’ চালিয়েছে। প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী ঢাকায় ১০৭ জনকে আটক করেছেন। এ ছাড়া ঢাকার বাইরে ৪৪ জনকে আটক করা হয়েছে।