• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

চলছে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব

সংবাদ :
  • বিনোদন প্রতিবেদক

| ঢাকা , শনিবার, ১২ জানুয়ারী ২০১৯

image

রেইনবো ফিল্ম সোসাইটির আয়োজনে ঢাকা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসব ২০১৯ শুরু হয়েছে গতকাল খেকে। ‘নান্দনিক চলচ্চিত্র, মননশীল দর্শক, আলোকিত সমাজ’ স্লোগানে নিয়ে এ উৎসব চলবে ৯ দিন। গতকাল উৎসবের ভেন্যুগুলো পরিদর্শন করে শতশত তরুণ-তরুণীদের ভিড় দেখা গেছে। উৎসবের এই সপ্তম আসরে বিশ্বের ৭২টি দেশের ২১৮ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। এর মধ্যে রয়েছে ১২২টি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ও ৯৬টি স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র।

এশিয়ান প্রতিযোগিতা, রেট্রোস্পেকটিভ, বাংলাদেশ প্যানারোমা, সিনেমা অব দ্য ওয়ার্ল্ড, টিল্ড্রেন্স ফিল্ম, স্পিরিচ্যুয়াল ফিল্মস, শর্ট অ্যান্ড ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম ও উইমেন্স ফিল্ম সেকশন এই কয়েকটি সেশনে প্রদর্শিত হবে উৎসবের ছবিগুলো।

যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাস, জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তন ও কবি সুফিয়া কামাল মিলনায়তন, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান স্মৃতি মিলনায়তন, শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তন ও অলিয়ঁস ফ্রঁসেজ এই ছয়টি মিলনায়তনে ছবিগুলো প্রদর্শিত হবে।

উৎসবে অংশগ্রহণকারী দেশগুলোর মধ্যে রয়েছে- আফগানিস্তান, আলবেনিয়া, আর্মেনিয়া, আর্জেন্টিনা, অস্ট্রেলিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, ভুটান, ব্রাজিল, কানাডা, চীন, কিউবা, সাইপ্রাস, ডেনমার্ক, ফিনল্যান্ড, ফ্রান্স, প্যালেস্টাইন, জার্মানি, গ্রিস, হংকং, হাঙ্গেরি, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, ইরান, ইটালি, জাপান, লুক্সেমবার্গ, মালয়েশিয়া, মেক্সিকো, নেপাল, নরওয়ে, পাকিস্তান, তাইওয়ান, তাজিকিস্তান, থাইল্যান্ড, তুরষ্ক, আরব আমিরাত, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ভেনিজুয়েলা এবং স্বাগতিক বাংলাদেশ।

উৎসবে চলচ্চিত্র দেখার নিয়ম

১. জাতীয় জাদুঘরের মূল মিলনায়তন : এখানে সকাল ১০টা থেকে চলবে শিশুতোষ চলচ্চিত্র। এক্ষেত্রে শিশুদের সঙ্গে অভিভাবকরাও আসতে পারবেন। এছাড়া, সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকেল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে দেখতে পারবেন। সেক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। এর বাইরে, সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য টিকেটমূল্য ৫০ টাকা।

২. কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগারের শওকত ওসমান মিলনায়তন : এখানে সকাল ১০টা থেকে শিশুতোষ চলচ্চিত্র প্রদর্শিত হবে। যেখানে অভিভাবকরাও শিশুদের সঙ্গে এই চলচ্চিত্রগুলো বিনামূল্যে উপভোগ করতে পারবেন।

এছাড়া, সকাল ১০টা, দুপুর ১টা ও বিকাল ৩টার প্রদর্শনী শিক্ষার্থীরা বিনামূল্যে দেখতে পারবেন। সেক্ষেত্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পরিচয়পত্র প্রদর্শন করতে হবে। এর বাইরে, সাধারণ দর্শনার্থীদের জন্য টিকেটমূল্য ৫০ টাকা।

৩. জাতীয় জাদুঘরের সুফিয়া কামাল মিলনায়তন : এই মিলনায়তনের সব প্রদর্শনী সবাই বিনামূল্যে উপভোগ করতে পারবেন। আসন সংখ্যা সীমিত থাকায় আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে।

৪. অঁলিয়াস ফ্রঁয়েজ মিলনায়তন : এখানকার প্রদর্শনীগুলো সবার জন্য উন্মুক্ত। আসন সংখ্যা সীমিত থাকায় আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে।

৫. শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা : এখানকার প্রদর্শনীগুলো সবার জন্য উন্মুক্ত। আসন সংখ্যা সীমিত থাকায় আগে আসলে দেখবেন ভিত্তিতে আসন বণ্টন করা হবে।

৬. যমুনা ব্লকবাস্টার সিনেমাসে : এখানে ব্লকবাস্টার কর্তৃপক্ষের নির্ধারিত প্রদর্শনীর বিনিময়ে দর্শকরা উৎসবের চলচ্চিত্রগুলো উপভোগ করতে পারবেন।

প্রসঙ্গত, কেন্দ্রীয় গণগ্রন্থাগার চত্বরে উৎসব চলাকালীন সময়ে নিয়মিত মিলনমেলার আয়োজন থাকবে। যেখানে চলচ্চিত্র র্নিমাতা ও চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্টরা তাদের চলচ্চিত্র পরিচিতির জন্য সমবেত হবেন।