• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২১, ২ মাঘ ১৪২৭, ২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

রায়পুর-পানপাড়া সড়ক চষাক্ষেত : দুই বছর ধরে ভারিযান বন্ধ

সংবাদ :
  • জেলা বার্তা পরিবেশক, লক্ষ্মীপুর

| ঢাকা , বুধবার, ২৪ জুলাই ২০১৯

image

লক্ষ্মীপুর : বেহাল রায়পুর-পানপাড়া সড়ক -সংবাদ

সড়কজুড়ে গর্ত আর খানাখন্দ। স্থানে স্থানে উঠে গেছে ইট। গর্তে জমে আছে কাদা পানি। দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় লক্ষ্মীপুরের রায়পুর-পানপাড়া সড়কের এমন দশা হয়েছে। বেহাল এই সড়কে দুই বছর ধরে ভারি যানবাহন চলাচল করতে পারছে না।

কোথাও কোথাও সড়কের অবস্থা এতটাই বেহাল যে হেঁটেও চলাচল করা যায় না। ফলে ভোগান্তি পোহাচ্ছেন দুই উপজেলার অন্তত ৩০ হাজার মানুষ। জানা গেছে, লক্ষ্মীপুর জেলার রায়পুর-রামগঞ্জ উপজেলার মধ্যে যোগাযোগের সহজ মাধ্যম ওই সড়ক। দুই উপজেলার বিভিন্ন পণ্য দ্রুত শহরে পৌঁছানো সম্ভব হতো এ সড়ক দিয়ে। কিন্তু দীর্ঘদিন সংস্কার না করায় এই সড়কে চলাচল অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বর্তমানে ওই সড়কের যানবাহনগুলোকে প্রায় ২০ কি.মি. ঘুরে রায়পুর-রামগঞ্জ উপজেলা শহরে যাতায়াত করতে হচ্ছে। উপজেলা প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতরের (এলজিইডি) আওতাধীন এই সড়ক এক সময় কাঁচা ছিল। আট বছর আগে এলজিইডি বিভাগ সড়কটির সাত কিলোমিটার সংস্কার করে। সংস্কারের এক থেকে দেড় বছর পরই সড়কের বিভিন্ন স্থানে পিচ ঢালাই উঠে গর্ত হয়ে যায়। সব শেষ গত দুই বছর আগে প্রাকৃতিক দুর্যোগের কবলে সড়কের বিভিন্ন স্থান ভেঙে যায়। সৃষ্টি হয় ছোটবড় গর্তের। বিশেষ করে সাত কিলোমিটার সড়কের তিন কিলোমিটার একেবারেই ভেঙে গেছে। সিএনজিচালক ফরিদ উদ্দিন বলেন, সড়কের বিভিন্ন স্থানে ভেঙে গিয়ে বড় বড় গর্ত হয়েছে। ওই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে গিয়ে লোকজন দুর্ঘটনার শিকারও হচ্ছেন। আর সামান্য বৃষ্টি হলে সিএনজি দূরের কথা হেঁটেও যাওয়া যায় না। বর্তমান এমপির বাড়িও এই সড়কে। এরপরও সড়কটি সংস্কার হচ্ছে না। রায়পুর উপজেলার কেরোয়া ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান কামাল বলেন, এ সড়ক দিয়ে প্রতিদিন দুই উপজেলার বিপুলসংখ্যক মানুষকে জেলা শহরে চলাচল করতে হয়। বর্তমানে সড়কের এমন অবস্থা যানবাহন তো দূরের কথা, হেঁটে চলাচল করাও কঠিন হয়ে পড়েছে। তাই সড়ক দিয়ে ভারি সব যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। মানুষের দুর্ভোগের বিষয়টি এমপিসহ বিভিন্ন জায়গায় জানানোর পরও সমস্যার সমাধান হচ্ছে না। রায়পুর উপজেলা প্রকৌশলী মো. আকতার হোসেন ভূঁইয়া বলেন, সড়কটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ। জরুরি ভিত্তিতে সড়কটি মেরামতের জন্য আরসিআইপি প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করে দরপত্রও আহ্বান করা হয়েছে। দ্রুত সড়কটি সংস্কার করা হবে।