• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫, ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

ছাত্রী যৌন নিগ্রহের অভিযোগে ডাক্তার কারাগারে

সংবাদ :
  • জেলা বার্তা পরিবেশক, সিরাজগঞ্জ

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সিরাজগঞ্জে বেসরকারি নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজের এক নেপালি ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের অভিযোগে ডা. তুহিন নামে এক চিকিৎসককে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

গত সোমবার রাতে পুলিশ তাকে আদালতে সোপর্দ করলে বিচারক কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। ডা. তুহিন নর্থবেঙ্গল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের প্রভাষক। ভুক্তভোগী ছাত্রী কলেজের চতুর্থ বর্ষে পড়েন।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি (তদন্ত) রফিকুল ইসলাম সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে জানান, ওই ছাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে চিকিৎসককে গ্রেফতার করার পর আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, লেখাপড়ার সুবাদে ডা. তুহিন প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলেন ছাত্রীটির সঙ্গে। এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তাকে যৌন নির্যাতন করেন। সম্প্রতি বিয়ের জন্য চাপ দিলে চিকিৎসক তুহিন অস্বীকার করেন। এ নিয়ে গত শুক্রবার দুপুরে দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়।

এরপর রোববার (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে আবারও ওই ছাত্রী ডা. তুহিনের বাড়ি গিয়ে বিয়ের জন্য চাপ দেয়। তখনও তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি এমনকি হাতাহাতিও হয়।

সেদিন সেই শিক্ষার্থী বিষয়টি কলেজের অধ্যক্ষকে জানান এবং সদর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। পরে ডা. তুহিনকে রাতেই আটক করে পুলিশ। এ বিষয়ে নর্থ বেঙ্গল মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. এসএম আকরাম হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আশা করি দ্রুততম সময়ের মধ্যে সবকিছু জানা যাবে। সিরাজগঞ্জ সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবু দাউদ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, মামলা হওয়ায় আসামিকে আটক করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।