• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০, ৩০ আষাঢ় ১৪২৭, ২২ জিলকদ ১৪৪১

খাল হালট দখলের মহোৎসব

সংবাদ :
  • দেবব্রত চক্রবর্তী, অষ্টগ্রাম (কিশোরগঞ্জ)

| ঢাকা , বুধবার, ১১ মার্চ ২০২০

কিশোরগঞ্জের অষ্টগ্রামে সরকারি খাল ও হালট দখলের মহোৎসব চললেও স্থানীয় প্রশাসন নির্বিকার রয়েছে। ফলে এ প্রতিযোগিতা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে । জানা যায়,অষ্টগ্রাম থানার দক্ষিণে প্রবাহিত ধলেশ্বরী নদী থেকে বড়খাল খালটি পূর্ব অষ্টগ্রামের সেনের খাল হয়ে হাজীপাড়ার সম্মুখ দিয়ে ইকুর দিয়া মেঘনা নদীতে মিলিত হয়েছে। এ উপজেলায় এটাই সবচেয়ে বড় খাল। এই খালটির বিভিন্ন স্থান বন্ধ করে কোথাও বাড়ি -ঘর, কোথাও পুকুর কেটে মাছের চাষসহ করা হচ্ছে। ফলে এ খালগুলোতে ২টি ইউনিয়নের বৃষ্টি ও বর্ষার চলে আসা পানি নিষ্কাশন ও প্রবেশের পথ বন্ধ হয়ে কয়েকটি মৌজার আমন আবাদ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়াও অভিযোগ রয়েছে, বাংগালপাড়া ইউনিয়ন ভুমি অফিসের সামনের পুকুরটি ভরাট করে বাংগালপাড়া ইউনিযন সহকারি ভূমি কর্মকর্তা সবুজ মিয়া অবৈধ মুনাফা নিয়ে পুকুরটি প্রবাবশালীদের ভোগ করার সুযোগ দিচ্ছে বলে এলাকাবাসী জানান। এদিকে দেওঘর ইউনিয়নের পাইন, আদিয়ার, সাভিযানগর, বীরগা খাল,মসজিজামের খালসহ উপজেলার বেশ কিছুখাল একই অবস্থা বিরাজ করছে । অন্যদিকে কুমরী কদমচাল এস এম নাথ হাই স্কুলের পশ্চিম পাশ দিয়ে প্রবাহিত খালটি প্রায় বিলীনের পথে। জানা যায়, সরকারি খাল ও হালটের এ অবস্থা কারন হচ্ছে এই উপজেলায় বছরের পর বছর এমনকি যুগের পর যুগ সহকারী কমিশনার ভূমি অফিসের এসিল্যান্ড, সার্ভেয়ার পদে লোক না থাকা এবং পার্শ্ববর্তী উপজেলা দায়িত্বে থাকলেও খুব একটা আসেন না বলে এলাকাবাসীরা জানান। এ ব্যাপারের অষ্টগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রফিকুল আলম জানান, আমি নতুন আসছি অচিরেই একটি কমিটি গঠন করে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এ ব্যপারে কিশোরগঞ্জে জেলা প্রশাসক মো. সাওয়ার মোর্শেদ চৌধুরীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি অষ্টগ্রাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বলে দিচ্ছি যেন ব্যবস্থা গ্রহণ করেন।