• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১১ ফাল্গুন ১৪২৪, ৬ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

সাভার ও গাজীপুরে হচ্ছে শ্রম আদালত

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

সাভার ও গাজীপুর শ্রমঘন এলাকা হলেও সেখানে বর্তমানে কোন শ্রম আদালত নেই। তবে শিগগিরই ওই দুই এলাকায় দুটি শ্রম আদালত প্রতিষ্ঠার চিন্তা সরকারের রয়েছে বলে জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মো. মুজিবুল হক চুন্নু। এছাড়া সিলেট ও রংপুরেও শ্রম আদালত স্থাপন করা হবে জানান প্রতিমন্ত্রী।

গতকাল সচিবালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠকের পরে সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান। ১১ সদস্য বিশিষ্ট ইইউ’র প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন জেন ল্যাম্বার্ড।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বর্তমান সরকার শ্রমিক বান্ধব সরকার। শ্রমিকের অধিকারের বিষয়টি সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে দেখে। সাভার ও গাজীপুর শ্রমঘন এলাকা হলেও সেখানে বর্তমানে কোনো শ্রম আদালত নেই। দেশে মোট সাতটি শ্রম আদালত রয়েছে। এর মধ্যে ঢাকায় তিনটি লেবার কোর্ট আছে। কোর্টগুলো একসঙ্গে আছে। নরসিংদী, নারায়ণগঞ্জ গাজীপুরে কোর্টটাকে শিফট করতে পারি কি-না এ রকম একটি চিন্তাভাবনা আমাদের আছে। গাজীপুরের শ্রমিক ঢাকায় এসে বিচার পাওয়া খুব ডিফিকাল্ট জিনিস। তিনি বলেন, আমরা আরও দুটি লেবার কোর্ট (শ্রম আদালত) বাড়াচ্ছি। যাতে শ্রমিকরা বিচারের সুযোগ পায়। নতুন দুটি লেবার কোর্টের একটি হবে সিলেটে আরেকটি হবে রংপুরে।

বৈঠক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, প্রতিনিধি দল মূলত গার্মেন্টস কারাখানা পরিদর্শনের অবস্থা, শ্রম আইন সংশোধন, ইপিজেড শ্রম আইন প্রণয়ন, নারীদের ক্ষমতায়নের বিষয়ে জানতে চেয়েছে। আমরা বলেছি কারখানা পরিদর্শনের কাজ শেষ করেছি, অ্যাকর্ড ও অ্যালায়েন্স কাজ শেষ করেছে। এখন আমাদের নিজস্ব সংস্কার সেল আছে, মিটিং হবে তারপর আমরা কাজ করব। মুজিবুল হক জানান, শ্রম আইন সংশোধনসহ বাংলাদেশের শ্রম খাত নিয়ে আন্তর্জাতিক শ্রম সংস্থার (আইএলও) কাছে একটি ড্রাফট পাঠানো হয়েছিল। তারা সেটার ওপর পর্যবেক্ষণ দিয়েছে। এটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আগামী অধিবেশনে শ্রম আইনটি সংশোধন করতে পারব। এখন সিস্টেম আছে, কোন ফ্যাক্টরিতে ট্রেড ইউনিয়ন করতে গেলে ৩০ শতাংশ শ্রমিকের সমর্থন লাগবে। এটা আমরা কমাচ্ছি। চারটি সøাব করে এটা আমরা কমাচ্ছি।

এসময় প্রতিমন্ত্রী জানান, রানা প্লাজা ধসের ঘটনার আগে দেশে পোশাক খাতে ১২০টি ট্রেড ইউনিয়ন ছিল এখন তা ৭০০টিতে পৌঁছেছে। আরও কয়েকশ প্রক্রিয়াধীন আছে।