• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ১১ এপ্রিল ২০২১, ২৮ চৈত্র ১৪২৭ ২৭ শাবান ১৪৪২

বড় পতন শেয়ারবাজারে

    সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , সোমবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২১

image

সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস গতকাল বড় পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একইসঙ্গে কমেছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেনও। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গতকাল প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৮২২ কোটি ৫৬ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। যা আগের দিন থেকে ১১৮ কোটি ৫২ লাখ টাকা কম। আগের দিন লেনদেন হয়েছিল ৯৪১ কোটি ৮ লাখ টাকার। গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৪.৪৯ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৫ হাজার ৬৪৯.৮৬ পয়েন্টে। ডিএসইর অন্য সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ১৫.০২ পয়েন্ট, ডিএসই-৩০ সূচক ৩০.৮১ পয়েন্ট এবং সিডিএসইটি ১৩.৫২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১২৬৫.৩৬ পয়েন্টে, ২১৬০.৩৯ পয়েন্ট এবং ১২১৭.৪১ পয়েন্টে। ডিএসইতে গতকাল ৩৫৬টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৫৬টির বা ১৫.৭৩ শতাংশের, শেয়ার দর কমেছে ২১০টির বা ৫৮.৯৯ শতাংশের এবং ৯০টির বা ২৫.২৮ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

অন্য শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৯৬.৩৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৬ হাজার ৪৭৯.৩৭ পয়েন্টে। সিএসইতে গতকাল ২৩৭টি প্রতিষ্ঠান লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৪২টির দর বেড়েছে, কমেছে ১৪১টির আর ৫৪টির দর অপরিবর্তিত রয়েছে। সিএসইতে ৮২ কোটি ৬৭ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র ব্লক মার্কেটে ২৬টি কোম্পানি লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব কোম্পানির ৩৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর ৪৫ লাখ ৬৫ হাজার ৬১৯টি শেয়ার ৪২ বার হাত বদল হয়েছে। এর মাধ্যমে কোম্পানিগুলোর ৩৭ কোটি ৮৭ লাখ ৪৪ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। কোম্পানিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১৬ কোটি ৯০ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ৫ কোটি ২৫ লাখ ৬০ হাজার টাকার রেনেটার এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ৫ কোটি ২৪ লাখ ৩৬ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে স্কয়ার ফার্মার।

এছাড়া আমান কটনের ৫ লাখ ৫ হাজার টাকার, আমান ফিডের ৭০ লাখ ১৭ হাজার টাকার, আনোয়ার গ্যালভানাইজিংয়ের ২২ লাখ ৮১ হাজার টাকার, বিকন ফার্মার ২ কোটি ৪০ লাখ ৯০ হাজার টাকার, ব্র্যাক ব্যাংকের ১ কোটি ২০ লাখ ৭৫ হাজার টাকার, সিটি ব্যাংকের ১৬ লাখ ২০ হাজার টাকার, ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের ২৪ লাখ ৪১ হাজার টাকার, ফাইন ফুডসের ৫ লাখ টাকার, জিবিবি পাওয়ারের ৭৬ লাখ ৬৫ হাজার টাকার, জিএসপি ফাইন্যান্সের ১১ লাখ টাকার, ম্যাকসন্স স্পিনিংয়ের ৬ লাখ ২৫ হাজার টাকার, মাইডাস ফাইন্যান্সের ৫ লাখ ৪ হাজার টাকার, এনসিসি ব্যাংকের ১৬ লাখ ৩১ হাজার টাকার, নিটল ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৩২ লাখ ৭৩ হাজার টাকার, প্রভাতী ইন্স্যুরেন্সের ৫ লাখ ২ হাজার টাকার, আরডি ফুডের ১৫ লাখ টাকার, রিপাবলিক ইন্স্যুরেন্সের ১ কোটি ৭২ লাখ ৩০ হাজার টাকার, সায়হাম কটনের ২০ লাখ টাকার, সী পার্লের ৫৩ লাখ ৩৯ হাজার টাকার, সিমটেক্সের ৫ লাখ ১১ হাজার টাকার এবং সামিট পাওয়ারের ৭ লাখ ৮০ হাজার টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

গতকাল ডিএসই’র লেনদেনে অংশ নেয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ২১০টির বা ৫৮.৯৯ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। এদিন শেয়ার দর সবচেয়ে বেশি কমেছে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের। গত বৃহস্পতিবার প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের শেয়ারের ক্লোজিং দর ছিল ৫৬.৫০ টাকায়। গতকাল লেনদেন শেষে এর শেয়ারের ক্লোজিং দর দাঁড়ায় ৫২.১০ টাকায়। অর্থাৎ গতকাল কোম্পানিটির শেয়ার দর ৪.৪০ টাকা বা ৭.৭৮ শতাংশ কমেছে। এর মাধ্যমে প্রাইম ইসলামী লাইফ ইন্স্যুরেন্স ডিএসইর টপটেন লুজার তালিকার শীর্ষে উঠে আসে।

ডিএসইতে টপটেন লুজার তালিকায় উঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে জিবিবি পাওয়ারের ৭.৭৮ শতাংশ, সামিট এলায়েন্স পোর্টের ৭.৬৯ শতাংশ, সামিট পাওয়ারের ৭.৬৩ শতাংশ, ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ৭.৫০ শতাংশ, এনার্জিপ্যাক পাওয়ারের ৭.৩৯ শতাংশ, সাইফ পাওয়ারটেকের ৭.৩৭ শতাংশ, অগ্রণী ইন্স্যুরেন্সের ৭.৩৬ শতাংশ, ফারইস্ট ফাইন্যান্সের ৬.৯৭ শতাংশ এবং ইস্টার্ন ইন্স্যুরেন্সের শেয়ার দর ৬.৪৮ শতাংশ কমেছে।