• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ২৭ আষাঢ় ১৪২৭, ১৯ জিলকদ ১৪৪১

বিডার কার্যক্রম ছড়িয়ে দেয়া হয়েছে প্রতিটি জেলায় : কাজী আমিনুল ইসলাম

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , বুধবার, ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) নির্বাহী চেয়ারম্যান কাজী আমিনুল ইসলাম বলেন, বিডার কৌশলগত পরিকল্পনা মাফিক বিনিয়োগকে শুধু ঢাকা ও চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক না রেখে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে দিয়ে যুবসমাজকে এর অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। বিচার সূচনাকালে এর কার্যক্রম শুধু বিভাগীয় শহরগুলোতে সীমাবন্ধ ছিল এখন তা প্রতিটি জেলায় পৌঁছেছে। এগুলোর মাধ্যমে বিনিয়োগ সেবা বিকেন্দ্রীকরণ হচ্ছে। গতকাল আগারগাঁওয়ের বিডার কার্যালয়ে তিন বছর পূর্তি উপলক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রতিষ্ঠানটির বিভিন্ন সাফল্য তুলে ধরে বিডার নির্বাহী চেয়ারম্যান বলেন, বিনিয়োগ বোর্ড এবং প্রাইভেটাইজেশন কমিশনকে একত্রিত করে সৃষ্টি করা হয় বিডা। ইতোমধ্যে ভিন্ন দু’টি প্রতিষ্ঠানের কাজ ও লোকবল একত্রিত করার জটিল কাজটি সম্পন্ন করা হয়েছে। বিডার কার্যক্রমকে আন্তর্জাতিকমানের করে তোলার জন্য তৈরি হয়েছে করপোরেট প্ল্যান। বাংলাদেশে বিনিয়োগের পরিবেশ উন্নয়ন ও বিনিয়োগকারীদের সহায়তা দেয়ার পাশাপাশি পলিসি অ্যাডভোকেসি, দেশের ভাবমূর্তি উন্নয়ন ও বিনিয়োগ ইকোসিস্টেম তৈরির জন্য কাজ করছে বিডা। এর কর্ম কৌশল হিসেবে বেছে নেয়া হয়েছে প্রধানমন্ত্রীর নির্বাচনী ইশতেহার। বিডার পরিকল্পনা মাফিক বিনিয়োগকে শুধুমাত্র ঢাকা এবং চট্টগ্রাম কেন্দ্রিক না রেখে প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়ে দিয়ে যুবসমাজকে এর অন্তর্ভুক্ত করা হচ্ছে। বিডার সূচনাকালে এর কার্যক্রম শুধুমাত্র বিভাগীয় শহরগুলোতে সীমাবদ্ধ ছিল যা এখন পৌঁছেছে প্রতিটি জেলায়। দেশব্যাপী নতুন ২৪ হাজার উদ্যোক্তা তৈরির লক্ষ্যে বিডা উদ্যোক্তা সৃষ্টি ও দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্প হাতে নিয়েছে। দেশের আটটি বিভাগে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে এ প্রকল্প। এর আওতায় প্রশিক্ষণ নিতে ইতোমধ্যে লক্ষাধিক তরুণ-তরুণী নিবন্ধন করেছে। দেশবাসীর কাছে বিনিয়োগ সেবা পৌঁছে প্রত্যেকটি জেলা শহরে উদ্যোক্তা উন্নয়ন ও বিনিয়োগ সহায়তা কেন্দ্র স্থাপন করেছে বিডা।

বিডা চেয়ারম্যান আরও বলেন, বাংলাদেশে বিদেশি বিনিয়োগের যে অমিত সম্ভাবনা সৃষ্টি হয়েছে তা সম্বন্ধে গোটা বিশ্বকে অবগত করছে বিডা। ইতোমধ্যে জাপান, সিঙ্গাপুর ও সৌদিআরবের মতো দেশ বিডার আহবানে অভূতপূর্ব সাড়া দিয়েছে। গত বছর সারা বিশ্বে যখন বিনিয়োগ ১৩ শতাংশ কমেছে, তখন রেকর্ড ৬৮ শতাংশ হারে বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে বাংলাদেশে বলেও জানান তিনি। বেশ কয়েকটি উন্নত দেশকে টার্গেট করে সেখান থেকে বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে আনার কাজ করেছে বিডা। বৃহৎ প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করেছে বিডা। জাপানের মিতসুবিশি মোটরস ইতোমধ্যে বাংলাদেশে কার্যক্রম শুরু করেছে বলেও জানান তিনি। বিনিয়োগকারীদের সুবিধার্থে অনলাইন ওয়ানস্টপ সার্ভিস দিচ্ছে বিডা উল্লেখ করে আমিনুল বলেন, বিনিয়োগকারীদের সেবা সম্প্রসারণের কাজ করে যাচ্ছি আমরা। ব্যবসা সহজীকরণ ও পরিবেশ উন্নয়নে দেশের বিভিন্ন আইন ও নিয়ম-কানুনের পরিবর্তন আনার কাজ আছে। নিউজিল্যান্ডের মতো বাংলাদেশেও সিঙ্গেল ডিরেক্টর কোম্পানি শুরু করার জন্য ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

বিডার সাফল্যের বিষয়ে তিনি আরও বলেন, বিডা প্রতিষ্ঠার আগের সময় (২০০৯-২০১৬) তুলনায় প্রকল্প বেড়েছে ২৩ শতাংশ (২০১৭-২০১৮) টাকায় বিনিয়োগ বেড়েছে ১৩১ শতাংশ (২০১৭-২০১৮) এবং কর্মসংস্থান বেড়েছে ৪৬ শতাংশ। বিডা প্রতিষ্ঠার আগের তুলনায় বিদেশি ও যৌথ বিনিয়োগের আয়তন বেড়েছে ৩৮৯ শতাংশ।

বিকেন্দ্রীকরণে দেশি দ্বিপাক্ষিক ও বিদেশি চেম্বার অব কমার্স গুলোর সঙ্গে কাজ করছে বিডা। ইতোমধ্যে সই হয়েছে বেশ কয়েকটি সমঝোতা স্মারক। আগামীতে দেশের পরিচিতি বাড়ানো, বিনিয়োগ ইকোসিস্টেম উন্নয়ন, অর্থনৈতিক ডাইভারসিফিকেশন, অনলাইন ওয়ানস্টপ সার্ভিস সেবা সম্প্রসারণ বিদেশে বাংলাদেশি মিশনগুলোকে বিনিয়োগ কার্যক্রমে যুক্ত করা হবে বলেও জানান বিডা চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা সৃষ্টি করে আমাদের অর্জন গুলো তুলে ধরতে হবে। আমাদের কার্যক্রম সঠিক ভাবে বাস্তবায়ন হলে আগামী দিনের বাংলাদেশ ভিন্নতর বাংলাদেশ হবে।’