• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

রবিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০১৯, ১২ ফাল্গুন ১৪২৫, ১৮ জমাউস সানি ১৪৪০

পোশাক কারখানার সব তথ্য নিয়ে ডিজিটাল ম্যাপ

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , সোমবার, ১১ ফেব্রুয়ারী ২০১৯

বাংলাদেশের রপ্তানিমুখী তৈরি পোশাক কারখানার তথ্যসম্বলিত একটি ডিজিটাল ম্যাপ ‘ম্যাপড ইন বাংলাদেশ’ (এমআইবি)-এর প্রথম সংস্করণ চালু হয়েছে। ব্র্যাক ইউএসএ-এর সহায়তায় এবং সিঅ্যান্ডএ ফাউন্ডেশনের অনুদানে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ডেভেলপমেন্ট (সিইডি)।

শনিবার বিজিএমইএর অ্যাপারেল ক্লাবে নতুন এই ডিজিটাল ম্যাপের বেটা ভার্সন উদ্বোধন করেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

প্রথম ধাপে বিজিএমইএ ও বিকেএমইএ-এর তালিকাভুক্ত পোশাক কারখানাগুলোর মধ্যে শুধু ঢাকা জেলায় অবস্থিত কারখানাগুলোর তথ্য, ভৌগলিক অবস্থান, কাজের ধরন এই ম্যাপে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সারাদেশের সব পোশাক কারখানা এমনকি অন্যান্য কারখানার তথ্যও এই ম্যাপে সংযুক্ত হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী ছাড়াও এমআইবির টিম লিডার রাহিম বি তালুকদার, প্রজেক্ট ম্যানেজার সায়্যেদ হাসিবুদ্দিন হোসাইন, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক সামছুজ্জামান ভূঁইয়া, ব্র্যাকের সিনিয়র ডিরেক্টর আসিফ সালেহ, এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বিজিএমইএর সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান, বিকেএমইএর জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি মনসুর আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, নতুন এই ম্যাপের মাধ্যমে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’-এর প্রচেষ্টা আরেক ধাপ এগিয়ে গেল। বিশ্বের যে কোন প্রান্ত থেকে এখন বাংলাদেশের পোশাক কারখানার শ্রমিক সংখ্যা, উৎপাদনের ধরন, কারখানার অবস্থান ও কোম্পানির সুনাম সম্পর্কে জানতে পারবেন যে কেউ। তথ্যের সহজলভ্যতার কারণে বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং ও ব্যবসা আগের চেয়ে বাড়বে।

পোশাক খাতের সমস্যা ও নেতিবাচক প্রচারণার পাশাপাশি গণমাধ্যমকে এই খাতের অর্জন ও সুনামগুলো তুলে ধরার আহ্বান জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ৪০ লাখ শ্রমিকের এই শিল্পে ছোট্ট একটা সমস্যা হলে গণমাধ্যমে সেটা যেভাবে প্রচার পায় বাকি সম্ভাবনার দিকগুলো সেভাবে আসে না। বিশেষ করে সম্প্রতি মজুরি বাড়ার কারণে প্রতিটি কারখানায় উৎপাদন খরচ যে ২৫ থেকে ৩০ শতাংশ বেড়েছে, সেই বিষয়টি আলোচনায় আসছে না।

বিজিএমইএ সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, পোশাক কারখানার বাইরে অন্যান্য সেক্টরের কারখানাগুলোর তথ্যও এই ম্যাপে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে শোনা যাচ্ছে। সেই কাজে হাত দেয়ার আগে বিজিএমইএর সঙ্গে যেন একবার পরামর্শ করে নেয়া হয়।

ব্র্যাকের সিনিয়র ডিরেক্টর আসিফ সালেহ বলেন, ২০১৫ সাল থেকে কর্মসংস্থানের বিভিন্ন দিকের উন্নয়নে কাজ করছে ব্র্যাকের সেন্টার ফর এন্ট্রাপ্রেনারশিপ ডেভেলপমেন্ট (সিইডি)। ৩০টি কারখানায় শ্রমিকের কর্মদক্ষতা বাড়াতে একটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে তারা। ব্র্যাকের এসব উদ্যোগের সঙ্গে যেসব কারখানা একাত্ম হয়েছে ব্যবসা-বাণিজ্যে তারা ইতিবাচক ফল পেয়েছে।