• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৪ মহররম ১৪৪২, ০৫ আশ্বিন ১৪২৭

পতনের বৃত্ত থেকে বের হচ্ছে না শেয়ারবাজার

গতকাল ফের ধস

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

image

পতনের বৃত্ত থেকে কোনভাবেও বের হচ্ছে না দেশের শেয়ারবাজার। দুয়েক দিন সূচকের কিছুটা উত্থান হলে পরের দিন তার চেয়ে আরও বেশি পতন হচ্ছে। গত মঙ্গলবারের মতো গতকালও পতনে শেষ হয়েছে শেয়ারবাজারের লেনদেন। এদিন শেয়ারবাজারে বড় ধরনের পতন হয়েছে। উভয় শেয়ারবাজারের সব সূচক কমেছে। একইসঙ্গে কমেছে লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে লেনদেন। ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই ও সিএসই) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, গতকাল ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৪২ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ৪ হাজার ৭৩৭ পয়েন্টে। ডিএসইর অপর দুই সূচকের মধ্যে শরিয়াহ সূচক ৭ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১০৮৮ এবং ১৬৪৭ পয়েন্টে। ডিএসইতে গতকাল টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ৩৮৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট যা আগের কার্যদিবস থেকে ২ কোটি ৫৫ লাখ টাকা কম। আগের কার্যদিবস লেনদেন হয়েছিল ৩৯২ কোটি ৫০ লাখ টাকার।

ডিএসইতে গতকাল ৩৫০টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৭৭টির বা ২২ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর বেড়েছে। দর কমেছে ২৩৫টির বা ৬৭ শতাংশের এবং ৩৮টি বা ১১ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর অপরিবর্তিত রয়েছে। টাকার অঙ্কে ডিএসইতে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে সোনাবাংলা ইন্স্যুরেন্সের। এদিন কোম্পানিটির ১২ কোটি ৭৪ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। লেনদেনে দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসা ন্যাশনাল টিউবসের ১২ কোটি ৬ লাখ টাকার এবং ১১ কোটি ১২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে ওঠে আসে রেনেটা।

ডিএসইর টপটেন লেনদেনে ওঠে আসা অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে : ওয়াটা কেমিক্যাল, খুলনা পাওয়ার, গ্লোবাল ইন্স্যুরেন্স, স্ট্যান্ডার্ড সিরামিক, সুহৃদ, রুপালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেবলস। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই এদিন ১১৫ পয়েন্ট কমে দাঁড়িয়েছে ১৪ হাজার ৪১৭ পয়েন্টে। এদিন সিএসইতে হাত বদল হওয়া ২৫১টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে শেয়ার দর বেড়েছে ৫৩টির, কমেছে ১৭৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৪টির দর। গতকাল সিএসইতে ১২ কোটি ২৮ লাখ টাকার শেয়ার ও ইউনিট লেনদেন হয়েছে।

অধিকাংশ ব্যাংকের শেয়ারের দাম কমেছে : গতকাল ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর কমেছে। আর ব্যাংক খাতে শেয়ার দর কমেছে ৫৭ শতাংশ প্রতিষ্ঠানের। জানা গেছে, আজ ৩০টি ব্যাংক লেনদেনে অংশ নিয়েছে। ব্যাংকগুলোর মধ্যে ৫টির বা ১৭ শতাংশের শেয়ার দর বেড়েছে। শেয়ার দর কমেছে ১৭টির বা ৫৭ শতাংশের এবং শেয়ার দর অপরিবর্তিত রয়েছে ৮টির বা ২৬ শতাংশ ব্যাংকের।

গতকাল শেয়ার দর সবচেয়ে বেশি অর্থাৎ ১.৬০ টাকা কমেছে ডাচ-বাংলা ব্যাংকের। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ০.৭০ টাকা কমেছে ইস্টার্ন ব্যাংকের এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ ০.৫০ টাকা কমেছে ব্র্যাক বাংকের। এ ছাড়া রূপালী ব্যাংকের ০.৪০ টাকা; এনসিসি, মিউচ্যুয়াল ট্রাস্ট, মার্কেন্টাইল, ব্যাংক এশিয়া ও ঢাকা ব্যাংকের ০.২০ টাকা করে এবং এবি, সিটি, এক্সিম, যমুনা, ওয়ান, প্রিমিয়ার, পূবালী এবং ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের শেয়ার দর ০.১০ টাকা করে কমেছে। গতকাল ৫টি ব্যাংকের শেয়ার দর বেড়েছে। ব্যাংকগুলোর মধ্যে ট্রাস্ট ব্যাংকের ০.৩০ টাকা এবং উত্তরা, স্ট্যান্ডার্ড, শাহজালাল ইসলামী ও আইসিবি ইসলামিক ব্যাংকের শেয়ার দর ০.১০ টাকা করে বেড়েছে। ৮টি ব্যাংকের শেয়ার দর অপরিবর্তিত রয়েছে। ব্যাংকগুলোর মধ্যে রয়েছে: সাউথইস্ট, স্যোসাল ইসলামী, প্রাইম, ন্যাশনাল, ইসলামী, আইএফআইসি, ফার্স্ট সিকিউরিটি ইসলামী এবং আল আরফাহ ইসলামী ব্যাংক।