• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

শুক্রবার, ১০ জুলাই ২০২০, ২৬ আষাঢ় ১৪২৭, ১৮ জিলকদ ১৪৪১

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব হলো নতুন উদ্ভাবনের যুগ

মোস্তাফা জব্বার

সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক

| ঢাকা , সোমবার, ১৩ মে ২০১৯

চতুর্থ শিল্প বিপ্লব হলো নতুন উদ্ভাবনের যুগ। এই যুগে নিত্যনতুন উদ্ভাবন করতে না পারলে টিকে থাকা যাবে না। গত শনিবার জিপিও মিলনায়তনে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ আয়োজিত ‘ইনোভেশন শোকেজিং’ অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

মোস্তাফা জব্বার বলেন- আমার বিশ্বাস, তরুণ মেধা কাজে লাগিয়ে নতুন উদ্ভাবন করা গেলে বাংলাদেশকে আর অন্য দেশের সাহায্য চাইতে হবে না। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগ হচ্ছে উদ্ভাবনের যুগ। আগামী ৫ বছরে বাংলাদেশের পরিবর্তন হবে অচিন্তনীয়। চলমান ডিজিটাল শিল্প বিপ্লবের এই যুগে যারা উদ্ভাবন করবে না তারা টিকবে না। বিষয়টি খুবই চ্যালেঞ্জিং।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সিনিয়র সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার), মো. শামসুল আরেফিন, ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, এটুআই পরিচালক মো. মোস্তাফিজুর রহমান এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ বিভাগের চিফ ইনোভেটর অফিসার মো. আজিজুল ইসলাম অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ ছয়টি প্রকল্প তুলে ধরে। ১ম প্রকল্প হলো, আইএমআই ডেটাবেইজ ও এনওসি স্বয়ংক্রিয়করণ। এর মাধ্যমে আমদানিকৃত সব মোবাইল হ্যান্ডসেটের আইএমইআই নম্বর সংরক্ষিত থাকবে। ভেন্ডর কর্তৃক মোবাইল হ্যান্ডসেটের আবেদনগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে প্রক্রিয়াকরণ করা সম্ভব হবে। ২য় প্রকল্প হলো, কেন্দ্রীয় বায়োমেট্রিক যাচাইকরণ প্লাটফর্ম। এর মাধ্যমে ব্যবহৃত সিমগুলোর সঠিকতা যাচাই করা যায়। সিস্টেমটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন হওয়ায় এটি ব্যবহার করে সেবা পেতে গ্রাহকের এক মিনিটেরও কম সময় লাগবে। সেবাটি পেতে গ্রাহককে কোন চার্জ পরিশোধ করতে হবে না। বর্তমানে এই সিস্টেমটি গড়ে প্রতিদিন ৬৫০০ জন গ্রাহক ব্যবহার করে তাদের ব্যবহৃত সিম নম্বরের সঠিকতা যাচাই করছে। ৩য় প্রকল্প হলো, বিটিসিএল ডায়ালার। এর মাধ্যমে মোবাইল ফোনে ডায়ালার ব্যবহার করে টেলিফোন সেবা প্রদান।

লাইন খারাপ হলেও ফোন রিসিভ ও ডায়াল করা যাবে। ৪র্থ প্রকল্প, নগদ। ডিজিটাল কেওয়াইসি ব্যবহার করে কম খরচে মানুষের দোরগোঁড়ায় আর্থিক সেবা পৌঁছে দেয়া। ৫ম প্রকল্প হলো, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অনলাইন ভর্তি ব্যবস্থা এবং ফলাফল যাচাইকরণ। এপিআইভিত্তিক ফলাফল যাচাই এবং অনলাইন ভর্তি ব্যবস্থা। ৬ষ্ঠ প্রকল্প হলো, ইন্টার অ্যাক্টিভ ভয়েস রেসপন্স (আইভিআর)। এর মাধ্যমে ই-ওয়ান বেইজড আইভিআর সার্ভিস প্রদানে সক্ষম আধুনিক প্রযুক্তি সম্পন্ন সার্ভার ভার্চুয়ালাইজেশন্স প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিপুল সংখ্যক জনগণের কাছে প্রাকৃতিক দুর্যোগের আগাম বার্তা প্রদান করা হয়।

ইনোভেশন শোকেজিং অনুষ্ঠানে বিটিআরসি পাঁচটি প্রকল্প, বিটিসিএল চারটি, ডাক অধিদফতর চারটি, টেলিটক চারটি, বিএসসিসিএল চারটি, টেলিযোগাযোগ অধিদফতর পাঁচটি প্রকল্প উপস্থাপন করে।