• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯, ৫ আষাঢ় ১৪২৫, ১৫ শাওয়াল ১৪৪০

উদ্যোক্তা হতে দরকার সামাজিক বুদ্ধিমত্তা

    সংবাদ :
  • নিজস্ব বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , শুক্রবার, ১১ জানুয়ারী ২০১৯

উদ্যোক্তা কিংবা পেশাগত দক্ষতায় বড় ধরনের পার্থক্য গড়ে দিতে পারে সামাজিক বুদ্ধিমত্তা। সামাজিক বুদ্ধিমত্তা এবং সামাজিক নেটওয়ার্ক শক্তিশালী থাকলে পেশাগত উন্নয়নে শিক্ষাগতযোগ্যতা বাধা হতে পারে না। উদ্যোক্তা উন্নয়নে এখন সবচেয়ে বেশি কার্যকর সামাজিক বুদ্ধিমত্তা।

ঢাকা স্কুল অব ইকোনমিক্সের (ডিএসসিই) উদ্যোগে আয়োজিত সেমিনার এসব কথা বলেন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়েস্টার্ন ক্যান্টাকি ইউনির্ভাসিটির ব্যবস্থাপনা বিভাগের অধ্যাপক ড. আফজাল রহিম। “উদ্যোক্তা উন্নয়নে নেতৃত্ব, সামাজিক বুদ্ধিমত্তা এবং আবেগের পরিমিতিবোধের ভূমিকা” শীর্ষক সেমিনারে তিনি এসব কথা বলেন। ডিএসসিইর উদ্যোক্তা অর্থনীতি কোর্সের সমন্বয়কারী ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ ড. মুহম্মদ মাহবুব আলীর সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ। এ সময় সহকারী অধ্যাপক রেহানা পারভীনসহ অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

রাজধানীতে সম্প্রতি অনুষ্ঠিত “হাউ লিডারস এ মডেল অব মার্জিনাল পাওয়ার বেজ : অলটারনেটিভ এক্সপ্লানেশনস অব রিপোর্টেড ফাইন্ডিংস : এ গ্রুপ লেভেল এনালাইসিস” শীর্ষক গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করে তিনি বলেন, ব্যবসা বাণিজ্যের উন্নয়নে সামাজিক বুদ্ধিদীপ্ততা বা বুদ্ধিমত্তা এখন সবচেয়ে বেশি প্রয়োজন। এমবিএ ডিগ্রিধারী ব্যবস্থাপক এবং এমবিএ ডিগ্রি নেই এমন ব্যবস্থাপক সমান হতে পারে যদি সামাজিক বুদ্ধিমত্তা থাকে। তিনি এ বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের এক হাজারের মধ্যে অর্ধেক এমবিএ ডিগ্রিধারী ব্যবস্থাপক এবং অর্ধেক যারা এমবিএ নন এমন ব্যবস্থাকের মধ্যে পার্থক্য গবেষণার মাধ্যমে পরিচালনা করেছেন। তিনি দেখেছেন যে, সফলতার ক্ষেত্রে কোন তারতম্য নেই। কারণ এমবিএ ডিগ্রিধারীরা সামাজিক বুদ্ধিদিপ্ততার মাধ্যমে এগিয়ে আসছেন।

ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ বলেন, দেশের উচ্চ শিক্ষার গুণগতমান চালুর মাধ্যমে অর্থনৈতিক উন্নয়নে অবদান রাখতে চায় ডিএসসিই। এজন্য দক্ষিণ এশিয়ার বিভিন্ন দেশে যেসব বিভাগ বা কোর্স চালু হয়নি এমন সব বিষয় পড়ানো হচ্ছে। পাশাপাশি বিশ্বের নামকরা অধ্যাপক ও গবেষকদের সঙ্গে এখানকার ছাত্রছাত্রীদের সংযোগ করা হচ্ছে বিভিন্ন ধরনের সেমিনারের মাধ্যমে। এছাড়া বিভিন্ন এক্সপো আয়োজন করা হয়। এরই ধারাবাহিকতায় আগামী ১৮ ও ১৯ জানুয়ারি আন্তর্জাতিক এক্সপো ও সামিট অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এতে এলিভেটর পিচসহ উদ্যোক্তা হবার নানান বিষয় থাকবে।

ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী বলেন, বর্তমান সরকার কর্মসংস্থান সৃষ্টির জন্য উদ্যোক্তা তৈরির যে উদ্যোগ নিয়েছে সেটি অর্জন করতে হলে পাঠ্যক্রম ঢেলে সাজাতে হবে। তিনি দেশের উদ্যোক্তা শিক্ষা সম্প্রসারণে অবদান রাখায় বৈশ্বিক উদ্যোক্তা নেটওয়ার্ক কর্তৃক পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন। আগামী ফেব্রুয়ারি মাসের ২ তারিখে পুরস্কার গ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।