• banlag
  • newspaper-active
  • epaper

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০ মহররম ১৪৪২, ১১ আশ্বিন ১৪২৭

উদীয়মান অর্থনীতিতে চীন-ভারতের চেয়ে এগিয়ে বাংলাদেশ

    সংবাদ :
  • অর্থনৈতিক বার্তা পরিবেশক
  • | ঢাকা , সোমবার, ০৪ মে ২০২০

image

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে গোটা বিশ্বের অর্থনীতি যেখানে পঙ্গু হয়ে যেতে বসেছে। সেখানে বাংলাদেশের অর্থনীতি তুলনামূলক নিরাপদ অবস্থানে আছে। এক গবেষণায় এ তথ্য জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সাপ্তাহিক পত্রিকা দ্য ইকোনমিস্ট।

চারটি নির্বাচিত খাতের অর্থনৈতিক দুর্বলতা পরীক্ষা করে এ তালিকা করা হয়েছে। সেগুলো হলো- সরকারি ঋণ জিডিপির কত শতাংশ, বৈদেশিক ঋণ (সরকারি ও বেসরকারি উভয়ই), ঋণ গ্রহণের ব্যয় এবং রিজার্ভের আওতা। উল্লেখিত চারটি সূচকেই বাংলাদেশের অর্থনীতিকে শক্তিশালী বা তুলনামূলকভাবে ভালো হিসেবে দেখানো হয়েছে। তালিকায় চীন, ভারত এবং দক্ষিণ এশিয়ার অন্য যেকোন দেশ থেকে এগিয়ে আছে বাংলাদেশ। তালিকার শীর্ষে আছে বতসোয়ানা এবং ভেনিজুয়েলা রয়েছে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকির মধ্যে। উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলোর সম্মিলিতভাবে সরকারি ঋণের পরিমাণ ১৭ ট্রিলিয়ন ডলার, যা বিশ্বের মোট ঋণের প্রায় ২৪ শতাংশ। এরই মধ্যে ফিচ রেটিং ১৮ দেশের ২০২০ সালের ক্রেডিট রেটিং কমিয়ে ফেলেছে, যা আগের যে কোন পুরো বছরের তুলনায় বেশি। ইকোনমিস্টের মতে, আর্জেন্টিনা তাদের বৈদেশিক বন্ডের ৫০০ মিলিয়ন ডলার পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়েছে। এর আগে করোনাভাইরাসের পরিস্থিতিতেও বাংলাদেশের জন্য সুখবর দিয়েছিল এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)। সংস্থাটি জানায়, সারা এশিয়া মহাদেশে বাংলাদেশেই সর্বোচ্চ প্রবৃদ্ধি হবে। চলতি অর্থবছরে মোট দেশজ উৎপাদনের (জিডিপি) প্রবৃদ্ধি কিছুটা কমে ৭ দশমিক ৮ শতাংশ হতে পারে। তবে সরকার চলতি অর্থবছরে ৮ দশমিক ২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছিল। ২০২০ সালে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা, নিয়ন্ত্রিত গ্রাহক, বিনিয়োগের আস্থা, আমদানি, রপ্তানি ও আর্থিক সংস্থান পুনরুদ্ধার, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের আর্থিক সম্প্রসারণ নীতি, অনুকূল আবহাওয়ার কয়েকটি অনুমানের ওপরে ভর করেই ৭ দশমিক ৮ শতাংশ প্রবৃদ্ধি হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।